ভিটামিন- ডি এর কাজ কি ? কোথায় পাব ভিটামিন-ডি ?

কোথায় পাব ভিটামিন-ডি ?

হাঁটু ব্যথা , কোমর ব্যথা এবং পুরো শরীর জুড়ে ব্যথার রোগীদের অনেকেরই টেস্ট করলে দেখা যায় , ভিটামিন ডি এর ঘাটতি আছে । অথচ প্রকৃতিতে ভিটামিন ডি এর অঢেল উৎস রয়েছে । আমরা সেটা নেওয়ার কোন সময়ই পাই না ।

ভিটামিন-ডি কি ?

ভিটামিন-ডি হলে এক ধরনের ভিটামিন । যেটা আমাদের শরীরে ক্যালসিয়াম এবং ফসফেটের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।

ভিটামিন- ডি এর কাজ কি ?

ভিটামিন ডি আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় । এছাড়া আমাদের শরীরের হাড়, দাঁত ও পেশী সুস্থ রাখতে এই ভিটামিনের প্রয়োজন।তাহলে বুঝতেই পারছেন – ভিটামিন-ডি এর অভাবে শরীরে কি কি সমস্যা হতে পারে ।
তবে ভিটামিন ডি এর অভাবে কমন কিছু সমস্যা হয়ে থাকে যেমন- বিভিন্ন জয়েন্টে ব্যথা, হাড় বেঁকে যাওয়া ।এছাড়া শিশুদের রিকেটস এবং প্রাপ্তবয়স্কদের অস্টিওম্যালাসিয়া নামক হাড়ের রোগও হয়ে থাকে ভিটামিনের অভাবে ।

ভিটামিন ডি কোথায় পাওয়া যায় ?

প্রকৃতির দেওয়া সূর্যের আলোই ভিটামিন-ডি এর প্রধান উৎস। সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত , সূর্যের সবচেয়ে বেশি ভিটামিন ডি পাওয়া যায় । এবং এটা নিরাপদও ।

কি খেলে ভিটামিন-ডি পাব

আমাদের দৈনিন্দন খাবারের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ভিটামিন-ডি এর চাহিদা পূরন করা কঠিন বিষয় ।

তবে কিছু খাবার আছে যেইগুলোতে অল্প হলেও কিছু ভিটামিন-ডি থাকে । সেইগুলো আপনি খেতে পারেন । যেমন –

১। তৈলাক্ত মাছ – সামুদ্রিক স্যামন মাছ , সার্ডিন, হেরিং এবং ম্যাকেরেল
২। লাল মাংস
৩। কলিজা
৪। ডিমের কুসুম

তবে সূর্যের আলোতে যাওয়ার কোন উপায় না থাকলে অবশ্যই ভিটামিন ডি খাবার বা ভিটামিন-ডি ট্যাবলেট খেতে হবে ।

প্রতিদিন আমাদের কতটুকু ভিটামিন-ডি প্রয়োজন –
এক বছর বয়সী শিশু এবং প্রাপ্তবয়স্কদের প্রতিদিন 10 মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন ডি প্রয়োজন।

তবে আসল কথা হল ১০-২০ মিনিট , সপ্তাহে কয়েকদিন রোদে হাঁটাহাঁটি করলেই আপনার প্রয়োজনীয় ভিটামিন-ডি পেয়ে যাবেন । তাই সময় বের করে এখনি রোদে হাঁটাহাঁটি শুরু করেন , শরীরকে সুস্থ রাখতে ।

ধন্যবাদ
ডাঃ সাইফুল ইসলাম , পিটি
বিপিটি , এমপিটি(অর্থোপেডিক)
ফিজিওথেরাপি কনসালট্যান্ট ,
ভিশন ফিজিওথেরাপি সেন্টার

Atiqur Rahman Tushar
Atiqur Rahman Tushar
Articles: 5