বাতের ব্যথা কমানোর উপায়

যারা বাতের ব্যথায় আক্রান্ত তাদের জন্য এই বাতের ব্যথা কমানোর উপায় নিবন্ধনটি খুবই সহায়ক হতে পারে। দীর্ঘদিন ধরে বাতের ব্যথায় ভুগছেন এমন অনেকেই তাদের ব্যথা উপশমের বিভিন্ন উপায় খোঁজেন। অনেকসময়, এই প্রতিকারগুলির অনেকগুলি কার্যকর নয় বা এমনকি ক্ষতির কারনও হতে পারে। বাতের ব্যথা পরিচালনার সর্বোত্তম উপায় হল জীবনযাত্রার পরিবর্তনের দিকে মনোনিবেশ করা এবং প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শ মত ওষুধ সেবন করা। 

বাত কি?

বাত শরীরের একটি বেদনাদায়ক রোগ যা জয়েন্টগুলিকে প্রভাবিত করে। এটি ব্যথা, শক্ত হওয়া এবং ফোলা হতে পারে। কিছু ক্ষেত্রে, বাত শরীরের অন্যান্য অংশকেও প্রভাবিত করতে পারে, যেমন ত্বক, চোখ এবং কিডনি। বাতের অনেক প্রকারভেদ আছে। এক ধরনের বাত, যা গেটে বাত নামে পরিচিত, এটি জয়েন্টগুলোতে ইউরিক অ্যাসিড জমা হওয়ার কারণে হয়। ইউরিক অ্যাসিড একটি বর্জ্য পণ্য যা শরীর দ্বারা উত্পাদিত হয়। যখন রক্তে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা খুব বেশি হয়ে যায়, তখন ইউরিক অ্যাসিড স্ফটিক হয়ে যায় এবং জয়েন্টগুলোতে জমা হতে পারে। এই জমাগুলি প্রদাহ এবং ব্যথা হতে পারে।

বাতের ব্যথার লক্ষণ

  • জয়েন্টে ব্যথা, প্রথমে নিস্তেজ এবং ব্যথা হয়, তারপর তীক্ষ্ণ ব্যথা
  • গতি হ্রাস, হাটতে সমস্যা হওয়া
  • জয়েন্টগুলো ফুলে যায় এবং লাল হয়ে যায় 
  • এক বা একাধিক জয়েন্টে দুর্বলতা

বাতের ব্যথা কমানোর উপায় কি?

বাত এমন একটি রোগ যা কখনো নির্মূলে নিরাময় সম্ভব না। বাতের ব্যথা নিয়ন্ত্রণে আসে যখন বাতের ওষুধ এবং আমাদের জীবনযাত্রার কিছু বাজে অভ্যাস পরিবর্তন করা হয়। আমরা বাতের উপশমে প্রমাণিত এমনকিছু বিষয় নিয়ে এই আর্টিকেলটি সাজিয়েছি।

স্বাস্থ্যকর ওজন 

স্বাস্থ্যকর ওজন প্রত্যেকের জন্য গুরুত্বপূর্ণ, তবে বিশেষ করে যারা জয়েন্টের ব্যথায় ভুগছেন তাদের জন্য। অতিরিক্ত ওজন আপনার পুরো শরীরের উপর চাপ বাড়ায়, বিশেষ করে আপনার জয়েন্টগুলোতে। তবে এখানে সুসংবাদটি রয়েছে- এমনকি মাত্র কয়েক কেজি ওজন কমানো আপনাকে আপনার গোড়ালি, হাঁটু এবং নিতম্বের উপর চাপ কমাতে সাহায্য করতে পারে। দীর্ঘমেয়াদী ওজন কমানোর জন্য, স্বাস্থ্যকর খাবার পরিকল্পনা ব্যবহার করুন এবং নিয়মিত শারীরিক কার্যক্রমে জড়িত হয়ে ধীরে ধীরে ওজন কমিয়ে ফেলুন।

বাতের ব্যথা কমানোর উপায়

স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া

একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য খাওয়া বাতের ব্যথার জন্য একটি নিরাময় নয়, তবে এটি লক্ষণগুলি কমাতে এবং সামগ্রিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে সাহায্য করতে পারে। একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য যাতে প্রচুর পরিমাণে ফল, শাকসবজি এবং গোটা শস্য রয়েছে তা জয়েন্টের ব্যথা কমাতে সাহায্য করতে পারে। খাবার থেকে আপনার প্রয়োজনীয় পুষ্টি পাওয়া আপনার শরীরকে নিরাময় করতে এবং নিজেকে মেরামত করতে সাহায্য করতে পারে। 

ব্যায়াম করা 

প্রতিদিনের ব্যায়াম জয়েন্টগুলিকে নড়াচড়া সাহায্য করতে করে। আপনার গতির পরিসর উন্নত করতে স্ট্রেচিং কার্যকলাপ সম্পর্কে আপনার ডাক্তারকে জিজ্ঞাসা করুন। আপনার শরীরকে সচল রাখতে আপনার দৈনন্দিন রুটিনে হালকা ব্যায়াম অন্তর্ভুক্ত করুন। এটি আপনার জয়েন্টগুলিকে শক্তিশালী করতে এবং ব্যথা প্রতিরোধ করতে সহায়তা করবে। হাঁটা ফিট থাকার, উষ্ণ থাকার এবং ব্যথা কমানোর একটি চমৎকার উপায়। এর চেয়ে ভালো বিকল্প নেই। বাতের ব্যথা কমানোর উপায় হিসেবে ব্যায়াম একটি ভাল উপায়। 

গরম সেক নেওয়া

গরম সেক সাধারণত দীর্ঘস্থায়ী ব্যথার জন্য ব্যবহৃত হয়, যেমন বাত বা পেশীর টান দ্বারা সৃষ্ট ব্যথা। এতে রক্ত ​​প্রবাহ বৃদ্ধি করে, জয়েন্ট এর আড়ষ্টতা  কমায়, এবং পেশী শিথিল করতে সাহায্য করে কাজ করে। 

বাতের ব্যথা কমানোর উপায়

আকুপাংচার

আকুপাংচার হল চীনা ওষুধের একটি প্রাচীন রূপ যাতে শরীরের নির্দিষ্ট পয়েন্টে ত্বকে পাতলা সূঁচ ঢোকানো হয়। যখন সূঁচ ঢোকানো হয়, তখন এন্ডোরফিন নিঃসরণকে উদ্দীপিত করে, যা শরীরের স্বাভাবিক ব্যথা উপশমকারী। আকুপাংচার রক্ত ​​প্রবাহ উন্নত করতে এবং বাত ব্যথা কমাতেও সাহায্য করতে পারে।

ম্যাসাজ

পেশীতে হালকা থেকে মাঝারি চাপ প্রয়োগ করা ব্যথা কমাতে এবং গতির পরিসর বাড়াতে সাহায্য করতে পারে। কারণ এটি পেশীর টান ভাঙতে এবং সঞ্চালন উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে। বাতের ব্যথা কমানোর উপায় হিসেবে ম্যাসাজ খুব ই কার্যকরী। আপনি যদি বিশেষভাবে খারাপ ফ্লেয়ার-আপের সম্মুখীন হন, তাহলে কালশিটে জয়েন্টগুলোতে খুব বেশি চাপ না দেওয়াই ভালো। পরিবর্তে, আপনি মৃদু প্রসারিত বা গরম সেক নিতে পারেন। একবার ফ্লেয়ার-আপ কমে গেলে, আপনি ধীরে ধীরে আপনার পেশী সক্রিয়করণের চিকিৎসার তীব্রতা বাড়ানো শুরু করতে পারেন। 

বাতের ব্যথা কমানোর উপায়

পর্যাপ্ত বিশ্রাম ও কর্মে সীমাবদ্ধতা

বাত ব্যথা হলে বিশ্রাম এবং কার্যকলাপের মধ্যে ভারসাম্য রাখা গুরুত্বপূর্ণ। অত্যধিক ক্রিয়াকলাপ ব্যথা এবং প্রদাহকে আরও খারাপ করতে পারে, যখন অত্যধিক বিশ্রাম কঠোরতা এবং দুর্বলতার দিকে পরিচালিত করতে পারে। বাতের ব্যথা নিয়ন্ত্রণের জন্য পর্যাপ্ত ঘুমানো খুব গুরুত্বপূর্ণ। ঘুম প্রদাহ এবং ব্যথা কমাতে সাহায্য করে এবং এটি আপনার মেজাজ এবং শক্তির মাত্রা উন্নত করতেও সাহায্য করে। 

এছাড়া আরো জানতেঃ বাতের ব্যথার ঘরোয়া চিকিৎসা

ব্যথা উপশমকারী লোশন ও ক্রিম 

বিভিন্ন ব্যথা উপশমকারী লোশন ও ক্রিম আছে যা সাময়িক ব্যথা উপশম করে। এইসব লোশন ও ক্রিম জয়েন্টগুলোতে প্রশমিত করার জন্য উষ্ণতা প্রদান করেব্যথা কমাতে সাহায্য করে। 

ধূমপান ছাড়ুন

আপনি যদি তামাকের প্রতি আসক্ত হন তবে আপনি এটিকে দ্রুত বর্জন করুণ । তামাকের ধোঁয়ায় থাকা টক্সিনগুলি সংযোগকারী টিস্যুর উপর চাপ সৃষ্টি করে, যা আরও জয়েন্ট সমস্যাগুলির দিকে পরিচালিত করে। এছাড়াও তামাক ক্যান্সার, স্ট্রোকসহ বিভিন্ন রোগ সৃষ্টি করে।

মুখে খাওয়ার ওষুধ

জীবনধারা পরিবর্তনের পাশাপাশি, প্রেসক্রিপশন এবং ওভার-দ্য-কাউন্টার ওষুধগুলি ব্যথা কমাতে সাহায্য করতে পারে। আপনার জন্য সঠিক আর্থ্রাইটিস (বাত) চিকিৎসা সম্পর্কে আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন। 

বাতের ব্যথা কমানোর উপায়

স্প্লিন্ট বা ব্রেস

স্প্লিন্ট এবং ব্রেসের মতো ডিভাইসের সাহায্যে বাতের ব্যথা কমানো যায়। এই ডিভাইসগুলি জয়েন্টগুলিকে বিশ্রামে রাখে, যা প্রদাহ এবং ব্যথা কমাতে সাহায্য করতে পারে। স্প্লিন্ট এবং ধনুর্বন্ধনী বিভিন্ন সময়ের জন্য পরা যেতে পারে, ব্যক্তির প্রয়োজনের উপর নির্ভর করে। উদাহরণস্বরূপ, হাঁটুতে আর্থ্রাইটিসে আক্রান্ত ব্যক্তি এমন কার্যকলাপের সময় একটি বন্ধনী পরতে পারেন যা জয়েন্টে চাপ দেয়, যেমন হাঁটা বা দৌড়ানো। তাদের হাতে বাত সহ একজন ব্যক্তি রাতে একটি স্প্লিন্ট পরতে পারেন যাতে তাদের আঙ্গুলগুলি নড়তে না পারে এবং ব্যথা হতে পারে।

বিভিন্ন ধরণের স্প্লিন্ট এবং ধনুর্বন্ধনী রয়েছে, তাই আপনার প্রয়োজনের জন্য সঠিকটি খুঁজে পেতে একজন ডাক্তার বা শারীরিক থেরাপিস্টের সাথে কথা বলা গুরুত্বপূর্ণ। স্প্লিন্ট এবং ধনুর্বন্ধনী বাতের ব্যথা পরিচালনা এবং কার্যকারিতা উন্নত করার জন্য একটি সহায়ক হাতিয়ার হতে পারে। 

পরিশেষে

উপরে বর্ণিত বাতের ব্যথা কমানোর উপায়গুলি পর্যালোচনা করার পরে আশা করি আপনি সহজেই বাতের ব্যথা কমানোর উপায় সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আপনি আপনার স্বাস্থ্যের বিষয়ে সচেষ্ট হোন এবং প্রয়োজনে সঠিক চিকিৎসা ও পরামর্শের জন্য চিকিৎসকের কাছে যান। সুস্থ থাকুন!

সচরাচর জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন সমূহ

বাতের ব্যথা কেন হয়?

বাত একটি বেদনাদায়ক অবস্থা যা জয়েন্টগুলিতে ইউরিক অ্যাসিড স্ফটিক তৈরি হলে ঘটে। এটি প্রদাহ, ব্যথা এবং ফোলা হতে পারে। আর্থ্রাইটিসে আক্রান্ত ২০% এরও বেশি লোকের এই অবস্থার পারিবারিক ইতিহাস রয়েছে। বাতের ঝুঁকি বাড়াতে পারে এমন অন্যান্য কারণগুলির মধ্যে রয়েছে ডায়াবেটিস, স্থূলতা, কিডনি রোগ এবং সিকেল সেল অ্যানিমিয়া।

বাতের ব্যথার চিকিৎসা কি?

বাতের কোনো নিরাময় নেই, তবে এমন কিছু চিকিৎসা আছে যা উপসর্গ উপশম করতে এবং জয়েন্টের আরও ক্ষতি প্রতিরোধ করতে সাহায্য করতে পারে। চিকিৎসার মধ্যে ওষুধ, ফিজিওথেরাপি এবং জীবনধারার পরিবর্তন অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

কোন খাবার খেলে বাত নিরাময় হয়?

বাত একটি দীর্ঘস্থায়ী রোগ যা জয়েন্টগুলোতে ব্যথা, শক্ত হওয়া এবং প্রদাহ সৃষ্টি করতে পারে। যদিও আর্থ্রাইটিসের কোনো নিরাময় নেই, এটি ওষুধ, শারীরিক থেরাপি এবং জীবনধারা পরিবর্তনের সমন্বয়ে পরিচালনা করা যেতে পারে। একটি গুরুত্বপূর্ণ জীবনধারা পরিবর্তন যা আর্থ্রাইটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিরা করতে পারেন তা হল একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য খাওয়া। যেসব খাবারে ফ্ল্যাভোনয়েড থাকে, যেমন সয়াবিন, গ্রিন টি, ব্রকলি এবং আঙ্গুর, শরীরে প্রদাহ প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে। প্রচুর ফাইবার খাওয়াও গুরুত্বপূর্ণ। পুরো শস্য, তাজা শাকসবজি এবং তাজা ফল ফাইবারের ভাল উৎস। এইসব খাবার বাত ব্যথা প্রতিরোধে ভুমিকা রাখে।

 

তথ্যসুত্রঃ

বাত কি? https://www.mayoclinic.org/diseases-conditions/arthritis/symptoms-causes/syc-20350772#:~:text=Arthritis%20is%20the%20swelling%20and,are%20osteoarthritis%20and%20rheumatoid%20arthritis

https://my.clevelandclinic.org/health/diseases/12061-arthritis

 বাতের ব্যথার লক্ষণ

https://www.versusarthritis.org/about-arthritis/conditions/arthritis/

https://www.nhs.uk/conditions/arthritis/

 বাতের ব্যথা উপশমে করণীয় কি?

https://www.healthline.com/health/osteoarthritis/arthritis-natural-relief#heat-and-cold

https://www.arthritis-health.com/blog/proven-strategies-relieving-arthritis-pain

https://www.webmd.com/arthritis/remedies-for-arthritis

https://www.medicalnewstoday.com/articles/324446#mindfulness-meditation

visionphysiotherapy
visionphysiotherapy
Articles: 82