প্যারালাইসিস কেন হয়? প্যারালাইসিস থেকে বাঁচার উপায়গুলো কি কি?

Table of Contents

প্যারালাইসিস কি?

আজকে আমরা জানবো প্যারালাইসিস কেন হয়।  প্যারালাইসিস কেন হয় এটা আমারা জানলে এটা চিকিৎসা করাতে পারবো। প্যারালাইসিস মানেই আমাদের একটা আতঙ্ক । প্যারালাইসিস মানেই মৃত্যু সমান আমি আর কোন দিন বিছানা থেকে উঠতে পারবো না। এরকম ধারনা আমাদের মাঝে আছে।কিন্তু বিষয়টা সত্য না।সঠিক সময়ে ঠিক ভাবে কারণ জেনে চিকিসা করালে  আপনি আবার সুস্থ হবেন আগের মত জীবনে ফেরত যেতে পারবেন।আমরা এখন জানবো প্যারালাইসিস কেন হয়। 

প্যারালাইসিস, পেশীর কার্যকারিতা কমে যাওয়ার এই অবস্থা হয়। প্যারালাইসিস কারণগুলি বোঝা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যাতে কার্যকর চিকিৎসা, সহায়তা প্রদান এবং শেষ পর্যন্ত, এই অবস্থার থাকে একটি উন্নতমানের জীবনযাপন করা যায়।, আমরা প্যারালাইসিসের হয় যে সকল কারনে এমন জটিল কারণগুলি জানার জন্য চেষ্টা করবোঃ

প্যারালাইসিসের কি কি কারনে হয়ে থাকে: 

প্যারালাইসিস বিভিন্ন কারণের হতে পারে, যার মধ্যে আঘাতজনিত ঘটনা থেকে শুরু করে অনেক কারনে হয়ে থাকে। আসুন এই সকল বিষয় গুলো জানা যাক

১.আঘাতজনিত আঘাত:

ট্রমা-প্ররোচিত প্যারালাইসিস প্রায়শই গুরুতর দুর্ঘটনা বা আঘাতের কারনে হয় যার ফলে মেরুদণ্ড বা মস্তিষ্কের ক্ষতি হয়। মোটর গাড়ির দুর্ঘটনা, উচ্চতা থেকে পড়ে যাওয়া এবং খেলাধুলা সংক্রান্ত দুর্ঘটনা সবই মেরুদন্ডে আঘাত বা মাথার আঘাতের কারণ হতে পারে, মস্তিষ্ক এবং শরীরের পেশীগুলির মধ্যে স্বাভাবিক যোগাযোগ ব্যাহত করে।

২. স্ট্রোক:

প্যারালাইসিস এর অন্যতম প্রধান কারণ, মস্তিষ্কে রক্ত ​​চলাচল বাধাগ্রস্ত হলে বা কমে গেলে স্ট্রোক হয়। মস্তিষ্কের কোষগুলিতে অক্সিজেন এবং পুষ্টি থেকে চলা চল বাধা ০বঞ্চিত করে, যার ফলে স্থায়ী ক্ষতি হয়। মস্তিষ্কের প্রভাবিত এলাকার উপর নির্ভর করে, পক্ষাঘাত বিভিন্ন উপায়ে প্রকাশ পেতে পারে, যেমন হেমিপ্লেজিয়া (শরীরের একপাশে প্যারালাইসিস) বা শরীরের নির্দিষ্ট অংশগুলিকে প্রভাবিত করে।

৩.স্নায়বিক ব্যাধি:

বেশ কিছু স্নায়বিক অবস্থার কারণে পক্ষাঘাত/ প্যারালাইসিস হতে পারে। এই ক্ষেত্রে:

মাল্টিপল স্ক্লেরোসিস:

এই অটোইমিউন রোগ কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে প্রভাবিত করে, যার ফলে স্নায়ু তন্তুগুলির প্রতিরক্ষামূলক আবরণ ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং মস্তিষ্ক ও শরীরের মধ্যে সংকেত ব্যাহত হয়।

সেরিব্রাল পালসি:

সাধারণত প্রাথমিক বিকাশের সময় মস্তিষ্কের ক্ষতি থেকে উদ্ভূত, সেরিব্রাল পালসি নড়াচড়া এবং পেশী সমন্বয়কে প্রভাবিত করে, যার ফলে বিভিন্ন মাত্রার পক্ষাঘাত হয়।

অ্যামায়োট্রফিক ল্যাটারাল স্ক্লেরোসিস (ALS): একটি প্রগতিশীল নিউরোডিজেনারেটিভ রোগ যা মস্তিষ্ক এবং মেরুদন্ডের স্নায়ু কোষকে প্রভাবিত করে, ALS ধীরে ধীরে পেশী দুর্বলতার দিকে নিয়ে যায়, অবশেষে পক্ষাঘাতে পরিণত হয়।

Guillain-Barré Syndrome: একটি অটোইমিউন ডিসঅর্ডার যেখানে শরীরের ইমিউন সিস্টেম পেরিফেরাল স্নায়ু আক্রমণ করে, প্রায়ই অস্থায়ী পক্ষাঘাতের ফলে।

৪. স্পাইনাল কর্ড ডিজঅর্ডার:

মেরুদণ্ডের কর্ডকে সরাসরি প্রভাবিত করে এমন ব্যাধিগুলিও মাল্টিপল স্ক্লেরোসিস / পক্ষাঘাতের কারণ হতে পারে। মেরুদণ্ডের টিউমার, সংক্রমণ (যেমন, ট্রান্সভার্স মাইলাইটিস), এবং অবক্ষয়জনিত ব্যাধি (যেমন, মেরুদণ্ডের স্টেনোসিস) এর মতো অবস্থাগুলি মেরুদণ্ডের কর্ডকে ক্ষতিগ্রস্ত বা সংকুচিত করতে পারে, স্নায়ু সংকেত ব্যাহত করতে পারে এবং ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পক্ষাঘাত ঘটাতে পারে।

 ৫. অটোইমিউন ডিসঅর্ডার:

কিছু অটোইমিউন রোগ মাল্টিপল স্ক্লেরোসিস/ পক্ষাঘাতে হতে পারে। মায়াস্থেনিয়া গ্র্যাভিস, উদাহরণস্বরূপ, স্নায়বিক সংযোগকে প্রভাবিত করে, যার ফলে পেশী দুর্বলতা এবং সম্ভাব্য মাল্টিপল স্ক্লেরোসিস হতে পারে। নিউরোপ্যাথির বিভিন্ন রূপ, যা পেরিফেরাল স্নায়ুর ক্ষতির সাথে জড়িত, এছাড়াও পক্ষাঘাত হতে পারে।

 ৬. জেনেটিক কারনে: 

পেশী ডিস্ট্রোফির মতো উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত ব্যাধিগুলি প্রগতিশীল পেশী দুর্বলতা এবং শেষ পর্যন্ত পক্ষাঘাত সৃষ্টি করতে পারে। এই অবস্থাগুলি, প্রায়শই জেনেটিক মিউটেশন থেকে উদ্ভূত, সময়ের সাথে সাথে পেশী টিস্যুগুলির গঠন এবং কার্যকারিতার সাথে আপস করে।

উপসংহার:

প্যারালাইসিস, তার বহুমুখী কারণ সহ, একটি রহস্য রয়ে গেছে যা চিকিৎসা সম্প্রদায়কে চ্যালেঞ্জ করে চলেছে। পক্ষাঘাতে অবদান রাখার কারণগুলি উন্মোচন করে, আমরা এর প্রভাবগুলি মোকাবেলা করতে এবং আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য সহায়তা প্রদানের জন্য আরও ভালভাবে সজ্জিত। ক্রমাগত গবেষণা, প্রযুক্তিগত অগ্রগতি, এবং যত্নের জন্য একটি সামগ্রিক পদ্ধতি

আরো পড়ুনঃ প্যারালাইসিস রোগীর ব্যায়াম

প্যারালাইসিস রোগীর পায়ের ব্যায়াম

প্যারালাইসিসের ঝুঁকি কমাতে আমি কোন জীবনধারা পরিবর্তন করতে পারি?

একটি স্বাস্থ্যকর জীবনধারা অবলম্বন করা পক্ষাঘাতের ঝুঁকি কমাতে অবদান রাখতে পারে। এর মধ্যে রয়েছে সুষম খাদ্য বজায় রাখা, নিয়মিত ব্যায়াম করা, ধূমপান এড়ানো এবং অতিরিক্ত অ্যালকোহল সেবন এবং দীর্ঘস্থায়ী অবস্থা যেমন ডায়াবেটিস বা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করা।

নিয়মিত ব্যায়াম কি প্যারালাইসিস প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে?

নিয়মিত ব্যায়াম সামগ্রিক স্বাস্থ্য বজায় রাখতে এবং স্ট্রোক বা মেরুদণ্ডের আঘাতের মতো পক্ষাঘাতের কারণ হতে পারে এমন কিছু চিকিৎসা অবস্থার ঝুঁকি কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শক্তি, নমনীয়তা এবং কার্ডিওভাসকুলার ফিটনেস প্রচার করে এমন ক্রিয়াকলাপগুলিতে জড়িত হওয়া আপনার শরীর এবং স্নায়ুতন্ত্রকে ভাল অবস্থায় রাখতে সাহায্য করতে পারে।

কোন নির্দিষ্ট ব্যায়াম আছে যা প্যারালাইসিস প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে?

পক্ষাঘাত প্রতিরোধের জন্য কোনো গ্যারান্টিযুক্ত ব্যায়াম না থাকলেও মূল শক্তি, ভারসাম্য এবং নমনীয়তার উপর ফোকাস করা ক্রিয়াকলাপগুলি সামগ্রিক শারীরিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে এবং পতন বা আঘাতের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করতে পারে। একটি ব্যক্তিগত ব্যায়াম পরিকল্পনার জন্য একজন শারীরিক থেরাপিস্ট বা ব্যায়াম বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ করুন।

প্যারালাইসিস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখা কতটা গুরুত্বপূর্ণ?

একটি স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখা সামগ্রিক সুস্থতার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি স্থূলতার মতো অবস্থার ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করতে পারে, যা স্ট্রোকের ঝুঁকি এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যাগুলির সাথে যুক্ত যা পক্ষাঘাতের কারণ হতে পারে। একটি পুষ্টিকর খাদ্য খাওয়া এবং নিয়মিত শারীরিক ক্রিয়াকলাপ একটি স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখতে সাহায্য করতে পারে।

visionphysiotherapy
visionphysiotherapy
Articles: 82